Skip Navigation

National Geographic Society This program is distributed in the U.S. and Canada by National Geographic and EHD. [learn more]

Multilingual Illustrated DVD [Tutorial]

The Biology of Prenatal Development




জন্মপূর্ব ঘটনাদির বিকাশ-সংক্রান্ত জীববিদ্যা

.বাং [Bengali]


 
Download English PDF  Download Spanish PDF  Download French PDF  What is PDF?
 

Chapter 1   Introduction

যে গতিশীল প্রক্রিয়ায় মানুষের আদি ভ্রূণকোষ এক লক্ষ কোটি কোষ সমৃদ্ধ এক পরিণত মানুষ হয়ে ওঠে তা সম্ভবতঃ প্রকৃতির সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য ঘটনা.

গবেষকরা এখন জানেন যে পরিণত শরীরের অনেক প্রাত্যহিক কাজকর্মই গর্ভাবস্থায় প্রতিষ্ঠিত হয়ে যায় - অনেক সময় জন্মের বহু আগেই.

জন্মের আগে বিকাশের এই অধ্যায়কে প্রস্তুতির সময় হিসেবে ধরা হয় যে সময়ে বিকাশশীল মানুষটি বহু অঙ্গবিন্যাস অর্জন করে, এবং বহুরকম নৈপুণ্য অভ্যাস করে, যা জন্মের পরে বেঁচে থাকার জন্য দরকার.

Chapter 2   Terminology

মানুষের ক্ষেত্রে গর্ভাবস্থা স্বাভাবিক অবস্থায় মোটামুটি ৩৮ সপ্তাহের হয়, যা অন্তঃসত্ত্বা হওয়া থেকে বা গর্ভাধানের সময় থেকে জন্মানো পর্যন্ত মাপা হয়.

গর্ভাধানের পরে প্রথম ৮ সপ্তাহের বিকাশশীল মানুষকে ভ্রূণ বলা হয়, যার অর্থ হল "ভেতরে বিকশিত হচ্ছে." এই সময়টিকে বলা হয় ভ্রূণ-সংক্রান্ত অধ্যায়, যার বৈশিষ্ট্য হল, শরীরের অধিকাংশ প্রধান শারীরিক তন্ত্র এই সময়ে গঠিত হয়.

৮ সপ্তাহের পর থেকে গর্ভাবস্থার শেষ হওয়া পর্যন্ত, "বিকাশশীল মানুষকে গর্ভস্থ সন্তান বলা হয়," যার অর্থ হল "অজাত সন্তান." এই সময়ে, যাকে বলা হয় গর্ভস্থ সন্তান-সংক্রান্ত অধ্যায়, শরীর বড় হতে থাকে এবং ওর তন্ত্র কাজ করতে শুরু করে.

এই কর্মকান্ডে ভ্রূণসংক্রান্ত ও গর্ভস্থ সন্তান-সংক্রান্ত সব অধ্যায়ের সময়ই গর্ভাধান থেকে ধরা হয়.

The Embryonic Period (The First 8 Weeks)

Embryonic Development: The First 4 Weeks

Chapter 3   Fertilization

জীববিজ্ঞানের ভাষায় বললে, 'মানুষের বিকাশ গর্ভাধান থেকে শুরু হয়,' যখন এক নারী ও এক পুরুষ নিজেরা প্রজনন-সংক্রান্ত কোষের মিলনের মাধ্যমে একেকজনের ২৩টি করে ক্রোমোজোম একত্রিত করে৤

নারীর প্রজনন-সংক্রান্ত কোষকে সাধারণতঃ বলা হয় "ডিম্বাণু" তবে সঠিক নাম হল উসাইট.

তেমনি, পুরুষের প্রজনন-সংক্রান্ত কোষের বহুল প্রচারিত নাম হল "শূক্রাণু" কিন্তু আরো ভাল নাম হল স্পার্মাটোজুন.

নারীর ডিম্বকোষ থেকে একটি উসাইট বেড়নোর পর, যে প্রক্রিয়াকে ডিম্বস্ফোটন বলা হয়, উসাইট এবং স্পার্মাটোজুন একটি জরায়ুজ টিউব, যাকে প্রায়শই ফ্যালোপিয়ন টিউব বলা হয়, তার ভেতরে মিলিত হয়.

জরায়ুজ টিউব নারীর ডিম্বকোষকে জরায়ু বা গর্ভের সাথে যুক্ত করে.

এর ফলে প্রাপ্ত এক-কোষের ভ্রূণকে বলা হয় ভ্রূণকোষ, যার অর্থ হল "সংযুক্ত হওয়া৤"

Chapter 4   DNA, Cell Division, and Early Pregnancy Factor (EPF)

ভ্রূণকোষের ৪৬টি ক্রোমোজোম একটি নতুন মানুষের সম্পূর্ণ জীন-সংক্রান্ত পরিকল্পনার অনন্য প্রথম সংস্করণকে প্রকাশ করে. এই চূড়ান্ত নকশাটি ডি এন এ নামক সজোরে কুন্ডলিত অণুর মধ্যে অবস্থিত. সমগ্র শরীরের বিকাশ-সংক্রান্ত নির্দেশ এতে থাকে.

ডি এন এ অণুর সাথে একটি বাঁকানো সিঁড়ির খুব মিল, যাকে বলা হয় যুগ্ম হীলিক্স. সিঁড়ির ধাপগুলি জোড়া অণু, বা গুয়ানাইন, সাইটোসাইন, এডেনাইন, এবং থাইমাইন নামে ক্ষার দিয়ে তৈরি.

গুয়ানাইন একমাত্র সাইটোসাইনের সাথে এবং এডেনাইন থাইমাইনের সাথে যুক্ত হয়. মানুষের প্রত্যেকটি কোষে এই ক্ষারের জুটি প্রায় ৩ লক্ষকোটি থাকে.

একটি কোষের ডি এন এ-তে এত তথ্য থাকে যে যদি সেগুলি মুদ্রিত অক্ষরে প্রকাশ করা হত, প্রত্যেকটি ক্ষারের শুধুমাত্র প্রথম অক্ষরের তালিকার জন্যই একটি বইয়ে ১.৫ দশ লক্ষ পৃষ্ঠা লাগত!

এ মাথা থেকে ও মাথা যদি টান টান করে পাতা হয়, তাহলে একটি কোষের ডি এন এ-র দৈর্ঘ্য হবে ৩ ১/৩ ফিট বা ১ মিটার.

আমরা যদি পরিণত শরীরের ১০০ লক্ষ কোটি কোষের ভেতরের কুন্ডলিত সব ডি এন এ খুলতে পারতাম,তাহলে তা ৬৩০০ কোটি মাইল ছাড়িয়ে যেত. যা কিনা সূর্য থেকে পৃথিবীর মধ্যে ৩৪০বার যাতায়াতের সমান হয়.

গর্ভাধানের মোটামুটি ২৪ থেকে ৩০ ঘন্টার পর ভ্রূণকোষ তার প্রথম কোষ বিভাজন শেষ করে. মাইটোসিস প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে একটা কোষ দুটোতে ভাগ হয়, দুটো চারটেতে, ইত্যাদি.

গর্ভাধান শুরুর ২৪ থেকে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে মায়ের রক্তে "আর্লী প্রেগনেন্সী ফ্যাক্টর" নামক একটি হর্মোনকে চিন্হিতকরণের মধ্যে দিয়ে গর্ভাবস্থা নিশ্চিত করা যায়.

Chapter 5   Early Stages (Morula and Blastocyst) and Stem Cells

গর্ভাধানের ৩ থেকে ৪ দিন পর, ভ্রূণের বিভক্তমান কোষগুলি একটি গোলাকৃত আকার গ্রহণ করে, এবং ভ্রূণকে তখন মোরিউলা বলে.

৪ থেকে ৫ দিনের মধ্যে এই গোলাকার কোষের ভেতর একটি গর্ত তৈরি হয় এবং ভ্রূণকে তখন বলে ব্লাস্টোসিস্ট.

ব্লাস্টোসিস্টের ভেতরের কোষকে বলে ইনার সেল মাস এবং এর থেকে বিকাশশীল মানুষটির মাথা, শরীর আর অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গাদি তৈরি হয়.

ইনার সেল মাসের ভেতরে অবস্থিত কোষকে এম্ব্রায়োনিক স্টেম সেল বলে কারণ মানুষের শরীরে যে ২০০-র বেশি কোষ-প্রকার আছে তার প্রত্যেকটি তৈরি করার ক্ষমতা এদের আছে.

Chapter 6   1 to 1½ Weeks: Implantation and Human Chorionic Gonadotropin (hCG)

জরায়ুজ টিউব দিয়ে নেমে এসে, প্রাথমিক ভ্রূণ মায়ের জরায়ুর ভেতরের দেওয়ালে দৃড়ভাবে প্রোথিত হয়. এই প্রক্রিয়াকে প্রতিস্থাপন বলে, যা কিনা গর্ভাধানের ৬ দিন পরে শুরু হয় ও গর্ভাধান থেকে ১০ থেকে ১২ দিন পরে শেষ হয়.

বিকাশশীল ভ্রূণের কোষ একটি হর্মোন তৈরি করতে শুরু করে, যাকে হিউমান কোরিওনিক গোনাডোট্রোপিন বা এইচ সি জি বলে, অধিকাংশ গর্ভাবস্থা সংক্রান্ত পরীক্ষায় এটিকেই চিহ্নিত করা হয়.

এইচ সি জি মাতৃসম্বন্ধীয় হর্মোনকে স্বাভাবিক ঋতুস্রাব বন্ধ করতে নির্দেশ দেয়, এবং গর্ভাবস্থাকে চালু থাকতে দেয়.

Chapter 7   The Placenta and Umbilical Cord

প্রতিস্থাপনের পর, ব্লাস্টোসাইটের বহিঃপ্রান্তের কোষগুলি গর্ভফুল নামে একটি অঙ্গবিন্যাসের অংশ তৈরি করে, যা মাতৃসম্বন্ধীয় ভ্রূণসংক্রান্ত সংবহন-ব্যবস্থার মধ্যে মিলনস্থল হিসেবে কাজ করে.

গর্ভফুল বিকাশশীল মানুষটিকে অক্সিজেন, পুষ্টিকর খাদ্যাংশ, হর্মোন এবং ওষুধ যোগান দেয়; সব বর্জ্য পদার্থ সরিয়ে দেয়; এবং মাতৃসম্বন্ধীয় রক্তকে ভ্রূণ ও গর্ভস্থ সন্তানের রক্তের সাথে মিশতে দেয় না.

গর্ভফুল হর্মোনও তৈরি করে এবং ভ্রুণ ও গর্ভস্থ সন্তানের শরীরের তাপমাত্রা মায়ের শরীরের তাপমাত্রা থেকে সামান্য ওপরে বজায় রাখে.

বিকাশশীল মানুষটির সাথে গর্ভফুল নাড়ির ধমনীর মাধ্যমে যোগাযোগ করে.

সংকটে গর্ভফুলের প্রাণধারণের ক্ষমতা আধুনিক হাসপাতালের ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করতে পারে.

Chapter 8   Nutrition and Protection

১ সপ্তাহের মধ্যে, ইনার সেল মাসের কোষগুলো দুটি স্তর তৈরি করে যাকে বলে হাইপোব্লাস্ট আর এপিব্লাস্ট.

হাইপোব্লাস্ট কুসুমথলী তৈরি করে, যার মধ্যে দিয়ে মা প্রাথমিক পর্যায়ের ভ্রুণকে পুষ্টিকর খাদ্য জোগায়.

এপিব্লাস্টের কোষ এম্নিয়ন বলে একটি ঝিল্লী তৈরি করে, যার ভিতরে ভ্রূণ এবং পরে গর্ভস্থ সন্তান জন্মানোর আগে অব্দি বিকশিত হয়.

Chapter 9   2 to 4 Weeks: Germ Layers and Organ Formation

মোটামুটি ২ ১/২ সপ্তাহের মধ্যে, এপিব্লাস্ট ৩টে দক্ষতাসম্পন্ন টিশু বা বীজের স্তর তৈরি করে, যাকে বলা হয় এক্টোডার্ম, এন্ডোডার্ম, এবং মেসোডার্ম.

এক্টোডার্ম তৈরি করে বিভিন্ন তন্ত্র যার মধ্যে আছে মস্তিষ্ক, মেরুদন্ড, স্নায়ু, চামড়া, নখ, এবং চুল.

এন্ডোডার্ম শ্বসনতন্ত্রের ও পাচনতন্ত্রের আস্তরণ তৈরি করে, এবং প্রধান অঙ্গগুলির অংশ তৈরি করে, যেমন যকৃৼ এবং অগ্ন্যাশয়.

মেসোডার্ম হৃৼ‌পিন্ড, মূত্রগন্থি, হাড়, কোমল অস্থি, পেশী, রক্তের কোষ, এবং অন্যান্য অঙ্গবিন্যাস তৈরি করে.

৩ সপ্তাহের মধ্যে মস্তিষ্ক ৩টি প্রধান অংশে ভাগ হয়ে যায়, ফোরব্রেন, মিডব্রেন, এবং হিন্ডব্রেন.

শ্বসনতন্ত্র ও পাচনতন্ত্রের নির্মাণও শুরু হয়ে যায়.

রক্তের প্রথম কোষ যখন কুসুমথলীতে আবির্ভূত হয়, ধমনী তৈরি হয়ে যায় ভ্রূণ জুড়ে, এবং টিউবাকৃত হৃৼপিন্ড উদ্ভূত হয়.

প্রায় তক্ষুণি, দ্রুত বিকাশশীল হৃ ৼপিন্ড নিজে ভাজ হতে থাকে যখন আলাদা আলাদা প্রকোষ্ঠের গঠন শুরু হয়ে গেছে.

গর্ভাধানের ৩ সপ্তাহ ও এক দিন পর থেকে হৃৼস্পন্দন শুরু হয়.

রক্তসংবহনতন্ত্র হল কাজের অবস্থা অর্জন করার ক্ষেত্রে শরীরের প্রথম তন্ত্র, বা সম্বন্ধীয় অঙ্গের একটি গোষ্ঠী.

Chapter 10   3 to 4 Weeks: The Folding of the Embryo

৩ আর ৪ সপ্তাহের মধ্যে, শরীরী পরিকল্পনা উদ্ভূত হয় যেহেতু ভ্রূণের কুসুমথলীর পাশাপাশি মস্তিষ্ক, মেরুদন্ড, এবং হৃৼপিন্ড সহজেই শনাক্ত করা যায়.

দ্রুত বিকাশের দরুণ তুলনামূলকভাবে চেপটা ভ্রূণ ভাজ হয়ে যায়. এই প্রক্রিয়াটি কুসুমথলীর অংশকে পাচনতন্ত্রের আস্তরণের মধ্যে অন্তর্ভূক্ত করে এবং বিকাশশীল মানুষটির বুক ও পেটের গহ্বর তৈরি করে.

Embryonic Development: 4 to 6 Weeks

Chapter 11   4 Weeks: Amniotic Fluid

৪ সপ্তাহের মধ্যে জলীয় পদার্থে ভর্তি একটা থলির মধ্যে স্বচ্ছ এম্নিয়ন ভ্রূণকে ঘিরে ফেলে. জীবাণুমুক্ত তরল যাকে এম্নিওটিক ফ্লুইড বলে ভ্রূণকে আঘাত পাওয়া থেকে রক্ষা করে.

Chapter 12   The Heart in Action

হৃৼস্পন্দন সাধারণতঃ প্রতি মিনিটে ১১৩বার হয়.

দেখুন কী ভাবে হৃৼপিন্ড রঙ বদলায় যখন প্রতি স্পন্দনের সাথে সাথে রক্ত প্রকোষ্ঠগুলিতে ঢোকে এবং বেড়োয়.

জন্মের পূর্বে হৃৼস্পন্দন মোটামুটি ৫ কোটি ৪০ লক্ষবার হবে এবং ৮০-বছরের জীবনকালে ৩.২ লক্ষ কোটিবারের বেশি হবে.

Chapter 13   Brain Growth

মস্তিষ্কের দ্রুত বিকাশ প্রতীয়মান হয় ফোরব্রেন, মিডব্রেন, এবং হিন্ডব্রেনের আকৃতির বদল দিয়ে.

Chapter 14   Limb Buds

৪ সপ্তাহে লিম্ব বাডের আবির্ভাবের সাথে সাথে হাত এবং পায়ের বিকাশ শুরু হয়ে যায়.

চামড়া এই সময় স্বচ্ছ থাকে কারণ ওটি মাত্র এক কোষ পুরু থাকে.

যেই চামড়া পুরু হতে থাকে, ওর স্বচ্ছতা চলে যায়, যার অর্থ হল আমরা আর এক মাস ভিতরের অঙ্গের বিকাশ দেখতে পাব.


Add a Comment

Your Name: Log In 3rd-party login: Facebook     Google     Yahoo

Comment: